মেনু নির্বাচন করুন
নোটিশ

“সদ্য বিলুপ্ত ছিটমহলগুলোতে আইসিটি প্রশিক্ষণ এর আবেদন ফরম

ফাইল

5196b89f8371217cb4d30d04b02fc947.pdf 5196b89f8371217cb4d30d04b02fc947.pdf


ছবি


Publish Date

২০১৯-০১-২২

Archive Date

২০২১-০১-৩০

বিস্তারিত

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তর কর্তৃক গৃহীতব্য “সদ্য বিলুপ্ত ছিটমহলগুলোতে আইসিটি প্রশিক্ষণ” শীর্ষক কর্মসূচির সার-সংক্ষেপ

কর্মসূচির নাম: সদ্য বিলুপ্ত ছিটমহলগুলোতে আইসিটি প্রশিক্ষণ কর্মসূচি;

বাস্তবায়নকারী সংস্থা: তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তর;

কর্মসূচির বাস্তবায়নকাল: দুই বছর (জুলাই, ২০১৮-জুন, ২০২০ খ্রি.);

প্রাক্কলিত  ব্যয়:  803.04 লক্ষ টাকা (আট কোটি তিন লক্ষ চার হাজার টাকা মাত্র);

 

পটভূমি

ছিটমহল হচ্ছে একটি স্বাধীন রাষ্ট্রের মূল ভূখণ্ডের অভ্যন্তরে বিচ্ছিন্ন অবস্থায় অবস্থিত অন্য কোনো স্বাধীন রাষ্ট্রের অন্তর্ভুক্ত এলাকা। বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে ভারতের ১১১টি ও ভারতের অভ্যন্তরে বাংলাদেশের ৫১টি ছিটমহল ছিল। উদ্ভূত সমস্যা নিরসন কল্পে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭৪ সালের ১৬ মে তারিখে ভারতের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর সাথে ঐতিহাসিক মুজিব-ইন্দিরা স্থল সীমান্ত চুক্তি স্বাক্ষর  করেন। এরই ধারাবাহিকতায় ০৬ জুন, ২০১৫ খ্রি. মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উপস্থিতিতে ছিটমহল বিনিময়ে মুজিব-ইন্দিরা স্থল সীমান্ত চুক্তির অনুসমর্থনের দলিল বিনিময় হয়। পরবর্তীতে ২০১৫ সালে ০১ আগষ্ট রাত ১২:০১ মিনিটে দুই দেশ (বাংলাদেশ ও ভারত) ঐতিহাসিক মুজিব-ইন্দিরা চুক্তির আওতায় একে অন্যের অভ্যন্তরে থাকা নিজেদের ছিটমহলগুলো বিনিময় করে। ফলে বাংলাদেশের ভৌগোলিক সীমানায় অবস্থিত ভারতের ১১১টি ছিটমহল বাংলাদেশের অন্তর্ভুক্ত হয়। ১১১টি ছিটমহলের মধ্যে লালমনিরহাটে ৫৯টি, পঞ্চগড়ে ৩৬টি, কুড়িগ্রামে ১২টি এবং নীলফামারীতে ৪টি ছিটমহল বাংলাদেশের সংশ্লিষ্ট জেলার প্রশাসনিক আওতাভুক্ত হয়েছে। এসকল এলাকার জনগোষ্ঠী গত সাত দশক ধরে সরকারি বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা হতে বঞ্চিত।  মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক ঘোষিত ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার উদ্দেশ্যকে সফল করতে বাংলাদেশ সরকার এর সকল প্রতিষ্ঠান নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের মূল স্রোতধারায় এ সকল পিছিয়ে পড়া নাগরিকগণকে সম্পৃক্ত করতে বিশেষ উদ্যোগ গ্রহণ করা প্রয়োজন। সরকারি সকল সেবা এইসব ভাগ্য বিড়ম্বিত এলাকায় নিশ্চিত করতে হলে আইসিটি সেবা বিস্তারের বিকল্প নেই। সদ্য বিলুপ্ত ছিটমহলগুলোতে ইতোমধ্যেই সরকারিভাবে স্থানীয় প্রশাসনের মাধ্যমে আইসিটি অধিদপ্তরের কর্মকর্তাগণ কর্তৃক পরিদর্শন কার্যক্রম সম্পন্ন করা হয়েছে। তাঁরা উক্ত ছিটমহলভুক্ত এলাকা সরেজমিনে পরিদর্শন এবং উক্ত এলাকার বাসিন্দা, তরুণ-তরুণী, শিক্ষক, জনপ্রতিনিধি, ছাত্রছাত্রী ও স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় সম্পন্ন করেছেন। পরিদর্শন সম্পন্ন হওয়ার পর উক্ত কর্মকর্তাগণ কর্তৃক ছিটমহলভুক্ত এলাকার জনগণের আইসিটিতে সচেতনতা, জ্ঞান এবং সরকারি বিভিন্ন ই-সেবা গ্রহণে অত্যন্ত অনগ্রসর মর্মে তথ্য প্রদান করা হয়েছে।  স্থানীয় তরুণ জনগোষ্ঠী আইসিটিতে দীর্ঘমেয়াদী প্রশিক্ষণ গ্রহণের মাধ্যমে স্বাবলম্বী হতে ইচ্ছুক মর্মে প্রতিবেদনে উল্লিখিত হয়েছে। তাঁরা এই অঞ্চলের জনগোষ্ঠীর মধ্যে আইসিটি সচেতনতা তৈরি, আইসিটি প্রশিক্ষণের মাধ্যমে আইসিটি দক্ষতা বৃদ্ধি এবং বিভিন্ন আইসিটি অবকাঠামো স্থাপনের মাধ্যমে এই অনগ্রসরতা দূরীকরণের সুপারিশ করেছেন। নিয়মিত প্রশিক্ষণের সুযোগ সৃষ্টি, সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন ডিজিটাল সেবার সুযোগ তৈরি, যুবকদের জন্য একটি সাইবার ক্যাফে, ফ্রিল্যান্সিং সেন্টার তৈরি ইত্যাদির নিমিত্ত প্রয়োজনীয় অবকাঠামো সমন্বয়ে ডিজিটাল ভিলেজ সেন্টার (আইসিটি রিসোর্স সেন্টার) স্থাপনের প্রয়োজনীয়তার ব্যাপারে প্রতিবেদনে সুপারিশ করা হয়েছে। সদ্য বিলুপ্ত এসকল ছিটমহলগুলোতে মৌলিক আইসিটি প্রশিক্ষণ, প্রচার-প্রচারণা ইত্যাদির মাধ্যমে জনসচেতনতা এবং আইসিটি জ্ঞান বৃদ্ধি করা সম্ভব। ছিটমহলভুক্ত এলাকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্রছাত্রীদের মাঝে আইসিটি শিক্ষা এবং শিক্ষায় আইসিটি ব্যবহারের সুযোগ সৃষ্টির জন্য উক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহে কম্পিউটার ল্যাব স্থাপন করা জরুরি। এছাড়াও, ছিটমহলভুক্ত এলাকায় নিয়মিত প্রশিক্ষণ আয়োজন, সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন ডিজিটাল সেবা প্রদান ইত্যাদির নিমিত্ত সুবিধাজনক স্থানে ডিজিটাল সেন্টার স্থাপনের মাধ্যমে সরকারি বিভিন্ন ই-সেবা গ্রহণের সুযোগ সৃষ্টিপূর্বক এই অঞ্চলে কমিউনিটি বেইসড সমৃদ্ধি আনয়ন করা সম্ভব।

 

জেলাভিত্তিক ছিটমহলসমূহের এবং শিক্ষা অবকাঠামোর সংক্ষিপ্ত তথ্য:

জেলার নাম

অধুনালুপ্ত ছিটমহলের সংখ্যা

প্রাইমারী স্কুল

হাই স্কুল / মাদ্রাসা

কলেজ

পঞ্চগড়

৩৬

১৬টি

১৮টি

৪টি

নীলফামারী

০৪

১টি

কুড়িগ্রাম

১২

৩টি

৬টি

১টি

লালমনিরহাট

৫৯

৫টি

৩টি

মোট

১১১

২৫টি

২৭টি

৫টি

 

 

 

কর্মসূচির উদ্দেশ্য

 

  1.  সদ্য বিলুপ্ত ছিটমহলের জনগোষ্ঠীর মাঝে আইসিটিতে সচেতনতা বৃদ্ধি এবং মৌলিক আইসিটির জ্ঞান বিস্তার;
  2.  সদ্য বিলুপ্ত ছিটমহলের তরুণ জনগোষ্ঠীকে হাতে কলমে আইসিটি প্রশিক্ষণের মাধ্যমে স্বাবলম্বী হতে সহায়তা প্রদান;
  3.  সদ্য বিলুপ্ত ছিটমহলভুক্ত এলাকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহে আইসিটি শিক্ষার উপযুক্ত অবকাঠামো নির্মাণ;
  4.  সদ্য বিলুপ্ত ছিটমহলভুক্ত এলাকার জনগণের মাঝে সরকারি বিভিন্ন ই-সেবা গ্রহণের সুযোগ সৃষ্টি;

 

কর্মসূচির আওতায় গৃহীতব্য প্রধান কার্যক্রমসমূহ

 

ক) আইসিটিতে অনভিজ্ঞ এবং আগ্রহী ৯0০ জন তরুণ/তরুণীকে “Basic ICT Literacy” প্রশিক্ষণ প্রদান।

খ) আইসিটিতে ন্যূনতম জ্ঞানসম্পন্ন ৩০০ জন তরুণ/তরুণীকে “IT Support Technician” বিষয়ে দীর্ঘমেয়াদী প্রশিক্ষণ প্রদান।

গ) সদ্যবিলুপ্ত ছিটমহলভুক্ত এলাকার ০৮ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার ল্যাব স্থাপন।

ঘ) ০৪ টি সুবিধাজনক স্থানে ডিজিটাল সেন্টার (আইসিটি রিসোর্স সেন্টার) স্থাপন।

 

প্রশিক্ষণ কার্যক্রম

“Basic ICT Literacy” প্রশিক্ষণ:

অংশগ্রহণকারী: সদ্য বিলুপ্ত ছিটমহলে বসবাসরত আইসিটিতে অনভিজ্ঞ এবং আগ্রহী তরুণ/তরুণী ও স্থাপিতব্য কম্পিউটার ল্যাবসমূহের ২০ জন শিক্ষক।

প্রতি ব্যাচে প্রশিক্ষণার্থীর সংখ্যা: 20 জন।

মোট ব্যাচের সংখ্যা: ৫0 টি।

প্রশিক্ষণের ব্যাপ্তি (ব্যাচ প্রতি): দুই সপ্তাহ (মোট ৪৮ ঘণ্টা)।

প্রতিদিন প্রশিক্ষণের ব্যাপ্তি: ৪ ঘণ্টা।

 

 

Basic ICT Literacy Training Course Outline:

ক্রমিক নং

বিষয়

ব্যাপ্তি

মোট প্রশিক্ষণ ব্যয়

 (লক্ষ টাকা)

  1.  

কম্পিউটার পরিচিতি

০৮ ঘণ্টা

1২১.০৫

  1.  

ওয়ার্ড প্রসেসিং

০৮ ঘণ্টা

  1.  

ইন্টারনেট ব্যবহারবিধি

০৮ ঘণ্টা

  1.  

মাল্টিমিডিয়া প্রেজেন্টেশন এবং স্প্রেডশীট

০৮ ঘণ্টা

  1.  

সফটওয়্যার ইন্সটলেশন

০৮ ঘণ্টা

  1.  

বেসিক ট্রাবলশ্যুটিং

০৪ ঘণ্টা

  1.  

ডিজিটাল বাংলাদেশ, ই-সেবাসমূহ

০৪ ঘণ্টা

 

 

সর্বমোট= ৪৮ ঘণ্টা

 

 

 

“IT Support Technician” প্রশিক্ষণ:

কোর্স/ট্রেনিং এর নাম: IT Support Technitician (NTVQF* Level1)

অংশগ্রহণকারী: সদ্য বিলুপ্ত ছিটমহলে বসবাসরত আইসিটিতে ন্যূনতম জ্ঞানসম্পন্ন এবং আগ্রহী তরুণ/তরুণী ও ডিজিটাল ভিলেজ সেন্টারের সকল উদ্যোক্তা ।

প্রতি ব্যাচে প্রশিক্ষণার্থীর সংখ্যা: ২0 জন।

মোট ব্যাচের সংখ্যা: ২০ টি।

প্রশিক্ষণের ব্যাপ্তি (ব্যাচ প্রতি): ৩৬০ ঘণ্টা

প্রতিদিন প্রশিক্ষণের ব্যাপ্তি: 6 ঘণ্টা।

 

IT Support Technician (NTVQF-Level 1) Course Outline:

Serial No.

Subject

Duration

Total Cost (lac taka)

  1.  

Use basic mathematical concepts

40

 

 

 

268.95

  1.  

Apply OSH practices in the workplace

30

  1.  

Present and apply workplace information

30

  1.  

Type Text and Documents in English and Bangla

90

  1.  

Access Information Using Internet and

Electronic Mail

10

  1.  

Operate Office Application Software

20

  1.  

Assemble hardware components

60

  1.  

Install and configure components of a Personal Computer

80

 

 

Total: 360 hours

*NTVQF: National Technical and Vocational Qualification Framework.

 

 

 

 

 

 

 

প্রশিক্ষণার্থীর যোগ্যতা

ক্র. নং.

প্রশিক্ষণ

যোগ্যতা

  1.  

Basic ICT Literacy প্রশিক্ষণ

 

ক) সদ্য বিলুপ্ত ছিটমহলের বাসিন্দা।

খ) ন্যূনতম অষ্টম শ্রেণি পাশ।

গ) আইসিটি প্রশিক্ষণ গ্রহণে আগ্রহী।

 

  1.  

IT Support Technician প্রশিক্ষণ

 

ক) সদ্য বিলুপ্ত ছিটমহলের অধিবাসী।

খ) ন্যূনতম এস.এস.সি পাশ।

গ) আইসিটিতে প্রাথমিক জ্ঞানসম্পন্ন।

ঘ) আইসিটি প্রশিক্ষণ গ্রহণের মাধ্যমে স্বাবলম্বী হতে আগ্রহী।

অথবা

Basic ICT Literacy প্রশিক্ষণে সফলভাবে উত্তীর্ণ।

*প্রশিক্ষণার্থী নির্বাচনের ক্ষেত্রে এ নিমিত্ত তৈরিকৃত প্রশিক্ষণার্থী বাছাই নীতিমালা অনুসরণ করা হবে

 

 

 

জেলাভিত্তিক ব্যাচ সংখ্যা (মোট জনসংখ্যার অনুপাতের ভিত্তিতে)

ক্রমিক নং

জেলার নাম

Basic ICT Literacy

প্রশিক্ষণ

IT Support Technician (NTVQF Level-1) প্রশিক্ষণ

.

পঞ্চগড়

২২ টি

৭ টি

.

নীলফামারী

১ টি

০ টি

.

কুড়িগ্রাম

১১ টি

৪ টি

.

লালমনিরহাট

১১ টি

৪ টি

মোট ব্যাচ সংখ্যা

৪৫ টি (মোট ৯০০ জন)

১৫ টি (মোট ৩০০ জন

 

*প্রতি ব্যাচে ২০ জন প্রশিক্ষণার্থী।

 

প্রশিক্ষণের জন্য আবেদন গ্রহণের সম্ভাব্য সময়সীমা: ১৫/১২/২০১৮ খ্রি. হতে ৩০/১২/২০১৮ খ্রি. তারিখ।

আবেদনপত্র যাচাই বাছাইয়ের সম্ভাব্য সময়সীমা: ০১/০১/২০১৯ খ্রি. হতে ১৫/০১/২০১৯ খ্রি. তারিখ।

প্রশিক্ষণ শুরুর সম্ভাব্য তারিখ: ২০/০১/২০১৯ খ্রি.।

বিস্তারিত তথ্যের জন্য: www.doict.gov.bd.

 

প্রশিক্ষণ সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্যের জন্য স্থানীয় পর্যায়ে যোগাযোগ

ক্র. নং.

কর্মকর্তার নাম

জেলা

পদবী

মোবাইল নং

১।

মো: নুরুল আমিন

পঞ্চগড়

সহকারী প্রোগ্রামার, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তর

০১৭২৩৯৫৪১৫৪

২।

মো: আশরাফুল আলম

লালমনিরহাট

০১৭১৯০২৭০৫৭

৩।

মো: আবু জাফর

কুড়িগ্রাম

০১৯২৭৩২৪৯৭৫

৪।

মো: কামরুজ্জামান

নীলফামারী

০১৭১৯৪২৩৪৬৭

 

 

 

কম্পিউটার ল্যাব স্থাপন

সদ্য বিলুপ্ত ছিটমহলসমূহে এই কর্মসূচির আওতায় প্রশিক্ষণ কার্যক্রমসহ বিভিন্ন সময় বিভিন্ন আইসিটি প্রশিক্ষণ পরিচালনা, ছিটমহলভুক্ত এলাকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্রছাত্রীদের মাঝে আইসিটি শিক্ষা এবং শিক্ষায় আইসিটি ব্যবহারের সুযোগ সৃষ্টি ইত্যাদির নিমিত্ত উপযুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহে কম্পিউটার ল্যাব স্থাপন করা হবে।

 

ডিজিটাল সেন্টার (আইসিটি রিসোর্স সেন্টার) স্থাপন

সদ্য বিলুপ্ত ছিটমহলভুক্ত এলাকায় নিয়মিত প্রশিক্ষণের সুযোগ সৃষ্টি, সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন ডিজিটাল সেবা (ই-সেবা) প্রদানের সুযোগ তৈরি, আগ্রহী যুবকদের জন্য একটি সাইবার ক্যাফে, ফ্রিল্যান্সিং সেন্টার তৈরি ইত্যাদির নিমিত্ত প্রয়োজনীয় অবকাঠামো সমন্বয়ে উক্ত এলাকার অধিবাসীদের কাছ থেকে দানসূত্রে প্রাপ্ত অথবা খাস জমিতে ডিজিটাল সেন্টার (আইসিটি রিসোর্স সেন্টার) স্থাপন করা হবে।

 

কর্মসূচি পরিচালনার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাগণ

ক্রমিক নং

কর্মকর্তার নাম

পদবী

যোগাযোগ

  1.  

মোহাম্মদ আবুল হাশেম

কর্মসূচি পরিচালক

মোবাইল: ০১৭১৬২২৩৪৪২

ইমেইল: hashem6704@gmail.com

  1.  

মো: দিদারুল কাদির

সহকারী কর্মসূচি পরিচালক

মোবাইল: ০১৭74632629

ইমেইল: ashique_39@yahoo.com

 

প্রত্যাশিত ফলাফল

  1.  

তরুণ জনগোষ্ঠীর মধ্যে আইসিটিতে সচেতনতা বৃদ্ধি, আইসিটির যথাযথ ব্যবহার ও মৌলিক আইসিটির জ্ঞান বিস্তার, সরকারি বিভিন্ন ই-সেবা এবং ডিজিটাল বাংলাদেশ বিষয়ে ধারণা তৈরি।

  1.  

আইসিটিতে বর্তমান কর্মক্ষেত্রের চাহিদা মোতাবেক একটি বিশেষ যুগোপযোগী বিষয়ের উপর হাতে কলমে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে আইসিটি লিটারেসি বৃদ্ধি, স্বাবলম্বী হতে সহায়তাকরণ, দারিদ্র্য দূরীকরণ এবং আর্থসামাজিক অবস্থার উন্নতি।

  1.  

ছিটমহলভুক্ত এলাকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্রছাত্রীদের মাঝে আইসিটি শিক্ষা এবং শিক্ষায় আইসিটি ব্যবহারের সুযোগ সৃষ্টি।

  1.  

ছিটমহলভুক্ত এলাকায় নিয়মিত প্রশিক্ষণের সুযোগ সৃষ্টি, সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন ডিজিটাল সেবা গ্রহণের সুযোগ তৈরি, যুবকদের জন্য একটি সাইবার ক্যাফে, ফ্রিল্যান্সিং সেন্টার তৈরি ইত্যাদির নিমিত্ত প্রয়োজনীয় অবকাঠামো স্থাপিত।


Share with :

Facebook Twitter